সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

Strict office Bengali joke

Funny story jokes in Bengali.
Strict office Bengali joke.
Strict office Bengali joke
Strict office Bengali joke

অফিসে নতুন এসেছেন খুব কড়া বড়কর্তা। তিনি এসেই সবাইকে নিজের নিজের কাজ বুঝিয়ে দিলেন।
কিছুক্ষণ পর একজনের কাজে তিনি খুব রেগে গেলেন। রেগে গিয়ে তিনি অফিসের সবাইকে শুনিয়ে চিৎকার করে জিজ্ঞেস করলেন, “সপ্তাহে কত মাইনে পাও তুমি?”
সে বলল, আজ্ঞে চার হাজার।
বড়কর্তা বললেন, “এই নাও তোমার এই সপ্তাহের বেতন চার হাজার টাকা, আর এবার বিদায় হও।”
এরপরেই তিনি অফিসের অন্যান্য কর্মচারীদের দিকে তাকিয়ে বললেন, “তোমরাও যদি এই রকম ভাবে কাজ করো তাহলে তোমাদেরকেও এইভাবে বের করে দেওয়া হবে।”
এবং এরপর ঐ লোকটি চলে যাওয়ার পর তিনি জানতে চাইলেন, “আচ্ছা ঐ লোকটি আমাদের অফিসে কি কাজ করে?”

অফিসের কর্মচারীরা জানালো, “স্যার ঐ লোকটি আমাদের অফিসে কাজ করে না, এখানে পিজা ডেলিভারি দিতে এসেছিলো!”

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

Go to toilet with a mobile Bengali funny story joke

Funny story jokes in Bengali. Go to toilet with a mobile Bengali funny story joke.
লোকটি টয়লেটে বসে বসে একমনে মোবাইল চালাচ্ছিল। একসময় হঠাৎ মোবাইলটি হাত ফস্কে কমোডের মধ্যে পড়ে গেল। পড়ল তো পড়ল একেবারে কমোডের ভেতরে ঢুকে গেল।
লোকটির একটি মাত্র মোবাইল, তাছাড়া লোকটি গরীব তাই এখন নতুন মোবাইল কেনাও সম্ভব নয়, যার ফলে এই ঘটনায় লোকটি শোকে এতটাই কাতর হয়ে পড়ল, টয়লেটে বসেই কান্না শুরু করে দিল।

অনেকক্ষন ধরে কাঁদার পর এই কান্না সহ্য করতে না পেরে এক দৈত্য বের হয়ে এসে লোকটির হাতে একটি মোবাইল ধরিয়ে দিয়ে বলল, “এই নাও তোমার মোবাইল। তোমার কান্না তো দেখছি আর থামছেই না। আর কেঁদোনা, এবার খুশী তো?

লোকটি জানালো, “আমি গরীব হতে পারি কিন্তু আমি লোভী নই। এই সোনার মোবাইলটা আমার নয়। আমারটাতো পুরোনো মোবাইল। এই সোনার মোবাইল আমি চাই না, চাই না, চাই না, আমার পুরোনো মোবাইলটাই আমাকে ফেরৎ দিন।”

এই শুন্যে দৈত্য রেগে গিয়ে লোকটিকে একটি চড় দিয়ে বলল, “নিজের মোবাইল চিনতে পারছিস না? এইটাই তোর সেই পুরোনো মোবাইল ভালো করে ধুয়ে দেখ!”

Your birthday joke in Bengali

Funny jokes in Bengali. Your birthday joke in Bengali.
For more fun download and share this joke with your friends.

I will remember him broken heart Bengali message

Broken heart messages in Bengali.I will remember him broken heart Bengali message.সে আমার হৃদয় ভেঙ্গে দিয়েছে
কিন্তু
আমি তারপরেও তাকে মনে রাখবো
কারণ
সে আমাকে শিখিয়েছে
ভাঙ্গা হৃদয় নিয়ে কেমন করে বাঁচতে হয়
আমি ভালোবাসি তোমাকে এখনো

Funny jokes in Bengali

Funny jokes in Bengali.
A crashed helicopter Bengali jokeএকটি হেলিকপ্টার দুর্ঘটনা হয়েছে... পুলিস অফিসারঃ কেমন করে এটা হয়েছে? পাইলটঃ উপরে খুব ঠাণ্ডা লাগছিল তাই পাখা বন্ধ করে দিয়েছিলাম। তারপরেই এই দুর্ঘটনা।

Bicycle shop Bengali jokeছোট্ট খোকা এক সকালে দোকানের একটা সাইকেল দেখিয়ে বলল- খোকা : আঙ্কেল, আপনাদের এই সাইকেলটা কি রাত পর্যন্ত থাকবে? দোকানদার : নিশ্চয়ই। কিন্তু কেন? খোকা : কারণ, আমি এখন বাড়ি গিয়ে সাইকেলটা কেনার জন্য ঘ্যান ঘ্যান শুরু করব। দুপুর নাগাদ বিরক্ত হয়ে মা আমাকে মারবেন। সন্ধ্যা অবধি আমার কান্না থামবে না। বাধ্য হয়ে রাতে বাবা আমাকে সাইকেলটা কিনে দেবেন।

Birthday invite Bengali jokeমেয়ে: শোন, আগামী রোববার আমার জন্মদিন। সন্ধ্যায় আমাদের বাসায় চলে আসিস। ছেলে: অবশ্যই আসব। কিন্তু তোর বাসার ঠিকানা তো জানি না। মেয়ে: শোন, চৌরাস্তার মোড় থেকে ডান দিকে এসে বাম দিকের প্রথম গলিতে ঢুকে সোজা এগিয়ে ডান পাশের গলিটার শেষ মাথায় আমাদের বাড়ি। বাড়ির তিন তলায় উঠে ডান পাশের দরজায় কনুই দিয়ে ডোরবেল বাজাবি, ব্যস্, আমি দরজা খুলে দেব। ছেলে: কনুই দিয়ে বেল বাজাতে হবে কেন? হাত দিয়ে বাজালে কী হয়? মেয়ে: ওমা! তোর হাতে উপহারের …

Mother is ill a love story Bengali comics

Bengali love story.Mother is ill a love story Bengali comics.Story by: JokluGraphics by: Joklu











Long distance Bengali riddle

Long distance Bengali riddle.দূরত্ব বাংলা ধাঁধা।
এমন কি আছে যা হেলদোল, চলাফেরা ছাড়াই নিজে থেকেই বহু দূরে পৌছে যায়?উত্তরের জন্য নীচে দেখতে হবে।****
****
****
****
****
****
উত্তরঃ রেললাইন।

Before and after marriage joke in Bengali

Funny jokes in Bengali.
Before and after marriage joke in Bengali.

Copying Bengali joke

Copying Bengali joke.

My marriage Bengali funny story

Funny stories in Bengali.
My marriage Bengali funny story.

আমি তখন বেকার, কিছুই করি না প্রেমটা ছাড়া। এদিকে প্রেমিকাও ধরেছে প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দিতে হবে।

এই বেকার অবস্থায় বিয়ে করে খরচ সামলাতে পারবো কিনা এই ভেবে আমি বেশ কয়েকবার এড়িয়ে গেছি ব্যাপারটা।

কিন্তু আমার প্রেমিকা এবার নাছোড়বান্দা, আমাকে নাকি গিয়ে তার বাবাকে বলতেই হবে। আমার প্রেমিকা তার বাবাকে অনেক বুঝিয়ে রাজি করিয়েছে এই ব্যাপারে কথা বলার জন্য।

প্রেমিকা যখন এত করে বলছে, তাছাড়া বিয়ে করার সময়ও তো হয়ে গেছে। আমি শেষ পর্যন্ত রাজি হয়েই গেলাম। প্রেমিকাকে জানিয়ে দিলাম ঠিক আছে পরের সপ্তাহে আমি যাব তোমার বাবার সঙ্গে আমাদের বিয়ের ব্যাপারে কথা বলতে।


যথারিতী পরের সপ্তাহে হাজির হয়েছি প্রেমিকার বাড়িতে। কিছুক্ষন অপেক্ষা করার পর অবাক হয়ে গেলাম কারণ, প্রেমিকা এসেছে সুইমিং ড্রেস পড়ে।

মেয়ের বাবার কাছে জানতে চাইলাম, “এইটাই কি আপনার মেয়ের বাড়িতে পড়ার ড্রেস?”
মেয়ের বাবা জানালো ঠিক তা নয়, আসলেতোমার সঙ্গে বিয়ে দেওয়া আর মেয়েকে জলে ফেলে দেওয়া তো একই কথা, তাই আগে থেকে মেয়েকে তৈরি করে দিলাম।